০১৮১৮-৬৭৬৪৬০

lsdcollegectg@gmail.com

লতিফা সিদ্দিকী ডিগ্রি কলেজ

EIIN: 105114

ছোট কুমিরা, সীতাকুণ্ড, চট্টগ্রাম

কলেজ পরিচিতি

ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের পাশে, সীতাকুণ্ড উপজেলার কুমিরা ইউনিয়নস্থ ছোট কুমিরায় মনোরম প্রাকৃতিক পরিবেশে মহান মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক, স্বাধীন বাংলাদেশের প্রথম বাণিজ্যমন্ত্রী, সাবেক রাষ্ট্রদূত, বাংলাদেশে লায়নিজম চর্চার জনক, লব্ধপ্রতিষ্ঠ শিল্পপতি, মোস্তাফিজুর রহমান সিদ্দিকী (এম আর সিদ্দিকী) কর্তৃক ১৯৮৫ সালে প্রতিষ্ঠিত হয় লতিফা সিদ্দিকী বালিকা মহাবিদ্যালয়। প্রতিষ্ঠাকালীন কলেজের কার্যক্রম মানবিক ও বিজ্ঞান দিয়ে শুরু হয়। পরবর্তীতে ১৯৯১ সালে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভূক্তি প্রাপ্তির মাধ্যমে বি.এ. ও বি.এস.এস. শ্রেণিতে শিক্ষা কার্যক্রম চালু করা হয়। পরবর্তীতে কলেজটিতে ব্যবসায় শিক্ষা প্রসারের কারণে ২০০১ সালে উচ্চ মাধ্যমিক শ্রেণিতে ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগ চালু হয়। দুই বছর পর, ২০০৩ সালে এলাকাবাসীর দাবির প্রেক্ষিতে, কলেজ পরিচালনা পর্ষদ ও শিক্ষক-কর্মচারীদের প্রচেষ্টায় কলেজটিকে সহশিক্ষা প্রতিষ্ঠানে রূপদান করা হয়। কলেজের শিক্ষাকার্যক্রমে ২০০৭ সালে যোগ হয় স্নাতক পর্যায়ে বি.বি.এস. কোর্স। বর্তমানে কলেজে উচ্চ মাধ্যমিক ও স্নাতক (পাস) শ্রেণিতে প্রায় দেড় সহস্রাধিক শিক্ষার্থী অধ্যায়নরত।

পাঠ্য বিষয়সমূহ:

মানবিক বিভাগ :
বাংলা, ইংরেজি, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি, পৌরনীতি ও সুশাসন, যুক্তিবিদ্যা,
অর্থনীতি, সমাজবিজ্ঞান, ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি।

বিজ্ঞান বিভাগ:
বাংলা, ইংরেজি, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি, পদার্থবিজ্ঞান, রসায়ন, জীববিজ্ঞান,
গণিত।

ব্যবসায় শিক্ষা :
বাংলা, ইংরেজি, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি, হিসাববিজ্ঞান, ব্যবসায় সংগঠন ও
ব্যবস্থাপনা, ফিন্যান্স ব্যাংকিং ও বিমা, অর্থনীতি।

স্নাতক (পাস) কোর্সে-
বিএ : বাংলা, ইংরেজি, স্বাধীন বাংলাদেশের অভ্যুদয়ের ইতিহাস, রাষ্ট্রবিজ্ঞান, দর্শন,
ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি

বিএসএস :
বাংলা, ইংরেজি, স্বাধীন বাংলাদেশের অভ্যুদয়ের ইতিহাস, অর্থনীতি, রাষ্ট্রবিজ্ঞান, দর্শন

বিবিএস:
বাংলা, ইংরেজি, স্বাধীন বাংলাদেশের অভ্যুদয়ের ইতিহাস, হিসাববিজ্ঞান, ব্যবস্থাপনা, অর্থনীতি

বিশেষ সুবিধাসমূহ:

বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থীদের কলেজ বেতন ফ্রি।
● জিপিএ ফাইভপ্রাপ্ত সকল বিভাগের শিক্ষার্থীদের
কলেজ বেতন ফ্রি ।

● আভ্যন্তরীণ পরীক্ষায় কৃতিত্বপূর্ণ ফলাফল
অর্জনকারীকে বিশেষ সুবিধা প্রদান ।

● লাইব্রেরি ওয়ার্ক সন্তোষজনক হলে বিশেষ পুরস্কার
প্রদানের ব্যবস্থা।

●গরীব ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের জন্য বিশেষ সুবিধা
প্রদান ।

কলেজের বৈশিষ্ট্যসমূহ:

■ ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের পাশে উন্নত যোগাযোগ
সুবিধা ।
■ কোলাহলমুক্ত শিক্ষার মনোরম পরিবেশ।
■ধূমপান ও রাজনীতিমুক্ত ক্যাম্পাস।
■ নিয়মিত পরীক্ষার বাইরে সাপ্তাহিক ও মাসিক
পরীক্ষার ব্যবস্থা।
■ প্রতি ১০ জন শিক্ষার্থীর জন্য ১ জন কাউন্সিলর
শিক্ষক ।
■ সমৃদ্ধ গ্রন্থাগার ও বিজ্ঞানাগার ।
■ মানসিক উৎকর্ষ সাধনে সহপাঠক্রমিক কার্যক্রম
যেমন খেলাধুলা, বিতর্ক, আবৃত্তি, রচনা
প্রতিযোগিতার আয়োজন ও শিক্ষা সফরের ব্যবস্থা।
■ অপেক্ষাকৃত দুর্বল শিক্ষার্থীদের জন্য বিশেষ যত্ন।
■ শিক্ষার্থীদের নির্ধারিত ইউনিফর্ম পরিধান ও
পরিচয়পত্রধারণ বাধ্যতামূলক ।
■ কলেজের নিয়মশৃঙ্খলা মেনে চলা বাধ্যতামূলক।
■ কলেজের অভ্যন্তরীণ সকল পরীক্ষায় পরীক্ষার্থীদের
অংশগ্রহণ বাধ্যতামূলক। পরীক্ষায় অনুপস্থিত ও
অনুত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদের পরবর্তী শ্রেণিতে উত্তীর্ণ করা
হয় না।
■ নির্বাচনি পরীক্ষায় কৃতকার্য সাপেক্ষে শিক্ষা বোর্ড ও
বিশ্ববিদ্যালয় পরীক্ষায় অংশগ্রহণের জন্য নির্বাচিত
করা হয়।
■ বিনা অনুমতিতে বহিরাগতদের কলেজ ক্যাম্পাসে
প্রবেশ নিষিদ্ধ ।
■ অভিভাবক সমাবেশের মাধ্যমে শিক্ষার্থী-অভিভাবক
ও শিক্ষকের মধ্যে সমন্বয় সাধন।

আমাদের লক্ষ্য:

● গুণগত মানসম্পন্ন শিক্ষাদান।

● শিক্ষার্থীদের মধ্যে শিক্ষার মৌলিক চেতনা জাগ্রত করা।
শিক্ষার্থীদের মধ্যে শৃঙ্খলাবোধ, সামাজিক
দায়িত্ববোধ, মানবিক ও নৈতিকতাবোধ জাগ্রত করা এবং পারস্পরিক সহানুভূতি ও সহযোগিতামূলক
মনোভাব গড়ে তোলা।

● সহপাঠক্রমিক কার্যক্রমের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের
অন্তর্নিহিত সকল প্রতিভার বিকাশ ও প্রকাশ
ঘটানো।

● মননশীল ও সৃজনশীল চিন্তার উন্মেষ ঘটাতে
সহায়তা প্রদান করা।
তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তিতে শিক্ষার্থীদের দক্ষতা বৃদ্ধিসহ সামগ্রিক জীবনমান উন্নয়নে পরিপূর্ণ সহায়তা প্রদান করা।